বাংলাদেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে কন্ট্রাক্টররা দুইনাম্বারী গজের কাপড় দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ টাকা- প্রতারিত হচ্ছে ভুক্তভোগী রোগী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ গতকাল ২৬শে মার্চ  মঙ্গলবার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মনবাড়িয়া সদর হাসপাতালে রোগীদের জন্য ব্যবহৃত দুইনাম্বারী গজের অভিযোগ শোনা যায়।

গতকাল ২৬শে মার্চ মঙ্গলবার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মনবাড়িয়া সদর হাসপাতালে রোগীদের সেলাই ও প্লাস্টার এর পর, গজের কাপড় দিয়ে বাধা হয়। আর এই গজের কাপড় যদি হয় ছেড়া তখন কি রোগীদের কাজে আসে৷        

এই ব্যাপারে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী রোগী কাসেম বলেন - আমার পা প্লাস্টার করার পর আমাকে যখন গজের কাপড় দিয়ে বেধে দেয় তখন একটু পরই গজের কাপড় ছিড়ে যায়। এই নিম্নমানের গজ দিয়ে আমাদের সাথে প্রতারিত করছে কন্ট্রাক্টরমহল। এই কন্ট্রাক্টরদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্তা গ্রহন করলে আমরা গরীবরা সঠিক সেবা পাবো। 

সদর হাসপাতালের কর্মরত একজন নাম বলতে অনিচ্ছুক সাংবাদিকদের বলেন- গত কয়েক বছর আগে অনেক ভাল ভাল গজের কাপড় কন্ট্রাক্টররা দিতেন এখন গজের কাপড় এর নিম্নমানের হয়েছে যে আমাদের কাজ করা কঠিন হয়ে পড়েছে ৷    

সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শওকত হোসেন বলেন- গত কয়েকমাস আগে সদর হাসপাতালে ছয়টি গ্রুপের কাজ টেন্ডার এর পর তিনবার রিটেন্ডার হয়। তারপর টেন্ডারের দরপত্র চূড়ান্ত হওয়ার পর সদর হাসপাতালের ছয়টি গ্রুপের কাজের টেন্ডার হয়। যে কন্ট্রাক্টর এই দুইনাম্বারী গজ দিয়ে গরিবের সাথে প্রতারিত করার অভিযোগ পাওয়া যায় তবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবো৷ আর আপনারা জানেন- তিনমাস অন্তর অন্তর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালের সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী এমপি মহোদয় এর আগামী সবাই তুলে ধরা হবে।

কোন কন্ট্রাক্টর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের গজের কন্ট্রাক পেয়েছে, এখনো সঠিক তত্ত্ব পাওয়া যায়নি । তবে কন্ট্রাক্টর এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে ।