বাংলাদেশ

সদর হাসপাতালে ভর্তি ছয় ডেঙ্গু রোগী- সিভিল সার্জনের দাবি জেলায় ডেঙ্গু নেই

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মানুষের মধ্যে ডেঙ্গু আতংক বিরাজ করছে। তবে জেলা প্রশাসন ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর সভার উদ্যোগে মশক নিধন অভিযান জোরদার করা হয়েছে।
এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোন ডেঙ্গু নেই। ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে এ পর্যন্ত ১৩জন রোগী চিকিৎসা নেন। তারা সবাই ঢাকা থেকে ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এদের মধ্যে ৭জন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন এবং বর্তমানে ৬জন চিকিৎসাধীন আছেন।

চিকিৎসাধীন রোগীরা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের জামাল হোসেন- (১৯), বিজয়নগর উপজেলার গঙ্গানগর গ্রামের জসিম মিয়া-(২১), একই উপজেলার চর-ইসলামপুর গ্রামের সাগর মিয়া-(১৫), নবীনগর উপজেলার মেরকুটা গ্রামের আবু বক্কর-(১৭), ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার শান্তিবাগ মহল্লার কামাল খান-(২৪) ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়নের ভাটপাড়া গ্রামের কাউসার মিয়া-(২৫)। তারা সবাই হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ডেঙ্গু আক্রান্তরা জানান, তাদের শরীরে জ্বর আসার পর তারা বাড়ি ফিরে আসেন। পরে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হলে জানতে পারেন তাদের ডেঙ্গু জ্বর হয়েছে। পরে তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন।
ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীরা আরো জানান, দেশের অন্যান্য হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের মশারী টানিয়ে রাখা হলেও গত রোববার রাত থেকে তারা হাসপাতাল থেকে মশারী পেয়েছেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া ও চিকিৎসাধীন রোগীরা ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে রাজধানী ঢাকা থেকে এসেছেন। এরা ঢাকায় বিভিন্ন বে-সরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন।
এ ব্যপারে জানতে চাইলে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শওকত হোসেন বলেন, বর্তমানে হাসপাতালে ৬জন রোগী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগী আছেন। তারা হাসপাতালে মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন। তাদের পর্যাপ্ত চিকিৎসা চলছে। কারো শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হবে।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলম বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোন ডেঙ্গু নেই। তিনি বলেন, দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেয়ার পর ঢাকা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে এসে ১৩জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ৭জন সম্পূর্ন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন বাকী ৬জন এখনো হাসপাতালে ভর্তি আছেন।
সিভিল সার্জন আরো বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় হাসপাতালে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রয়েছে। জেলার অন্যান্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতেও চিকিৎসার প্রস্তুতি রয়েছে। তিনি বলেন, জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসকদের একটি টীম ডেঙ্গু রোগীদের নিয়ে কাজ করছেন। তিনি বলেন, ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোন কারণ নেই। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সবাইকে সচেতন হতে হবে।