রাজনীতি

নৌকার প্রার্থী হতে চান সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে মনোনয়ন ফরম কিনেছেন সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ। রোববার ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ঢাকা বিভাগীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের বুথ থেকে তার জন্য মনোনয়ন ফরম কেনা হয়। ওই বুথে ফরম বিক্রির দায়িত্বে থাকা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা সামসুল কবির রাহাত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদের জন্য তার ছেলে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন।” কিশোরগঞ্জ-২ (পাকুন্দিয়া-কটিয়াদী) আসনে নৌকার প্রার্থী হতে চাইছেন নূর মোহাম্মদ। ওই আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগেরই সোহরাব উদ্দিন। পুলিশের সাবেক এই মহাপরিদর্শক নির্বাচনে প্রার্থী হতে গত কয়েক মাস ধরে পাকুন্দিয়া-কটিয়াদী চষে বেড়াচ্ছেন। জরুরি অবস্থার সময় পুলিশ প্রধানের দায়িত্বে থাকা নূর মোহাম্মদ পরে মরক্কোয় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্বে ছিলেন। সরকারি চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার আগে তিনি যুব ও ক্রীড়া সচিবের দায়িত্বও পালন করেন। এদিকে দ্বিতীয় দিন শনিবারও উৎসব মুখর পরিবেশে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে আট শতাধিক। প্রতিটি ফরমের মূল্য ৩০ হাজার টাকা করে। শুক্রবার ১ম দিনে ১৩২৯ জন, দ্বিতীয় দিন শনিবার ১১৩২জন ও রবিবার ৮৩৫ জন। মোট তিন দিনে ৩২৯৬টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে। রবিবারও আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়নপ্রত্যাশী ও তাদের অনুসারী নেতা-কর্মীদের প্রচণ্ড ভিড় ছিল। নানা রঙের ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে শো-ডাউনের মাধ্যমে দলের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। ঢাকা ও ঢাকার বাইরে থেকে আসা নেতাকর্মীদের কারণে আশপাশের রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। রবিবার ঢাকা বিভাগের টাঙ্গাইল থেকে আব্দুর রাজ্জাক, ঢাকা-৬ থেকে আবদুস সোবহান গোলাপ, ঢাকা ৮ আসনে আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, শরিয়তপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, গাজীপুর কালিগঞ্জ থেকে চিত্র নায়ক ফারুক, ঢাকা ৮ থেকে সাবেক ছাত্রনেতা সূত্রাপুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী আবু সাইদ, ঢাকা ৬ থেকে সাবেক ছাত্রনেতা সবচেয়ে কম বয়সী (২৬) তরুন মাহমুদুল হক জেমসসহ ২২০ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। চট্টগ্রাম বিভাগের চট্রগ্রাম-১ আসনে আওয়ামী লীগের ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ফেনী -৩ নাট্য অভিনেত্রী শমী কায়সার, চাঁদপুর থেকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, লক্ষ্মীপুর সদর থেকে বিমানমন্ত্রী শাহজাহান কামাল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনে বদরুদ্দোজা মো. ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম, চট্রগ্রাম-১২ আসনে জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চুসহ ১৮২ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। ময়মনসিংহ অঞ্চলে জামালপুর ৫ আসনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য মারুফা আক্তার পপি, নেত্রকোনা-২ আসনে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রনেতা শাহ মোস্তফা আলমগীর, নেত্রকোনা-৩ আসনে সাবেক সাংসদ মঞ্জুর কাদের কোরাইশী, ময়মনসিংহ-৭ আসনে নুরুল আলম পাঠান মিলনসহ ৭৩ জন মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। রাজশাহী বিভাগে জয়পুর হাট-২ আসনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপণ, জয়পুর হাট-১ আসন থেকে সাবেক ছাত্রনেতা মো. তৌফিদুল ইসলাম বুলবুল, জয়পুর হাট-২ আসন থেকে মনোনয়ন নেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম সোলায়মান আলীসহ ৭৯ জন মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। খুলনা বিভাগে মাগুরা-১ সাইফুজ্জামান শিখর, বাগেরহাট-২ আসনে শেখ হেলালের ছেলে শেখ তন্ময়, বাগেরহাট-৪ আসনে ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগসহ মনোনয়ন নিয়েছেন ৭৯ জন। রংপুর বিভাগে দিনাজপুর-৫ আসনে জেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগের দিনাজপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া জাকির, ঠাকুরগাঁও -৩ আসনে পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আখতারুল ইসলামসহ ৮৩জন মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন।