রাজনীতি

নবীনগর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়নপত্র পাওয়ার শীর্ষে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগনেতা এইচ এম আল-আমিন

নিজস্ব প্রতিবেদক :  : জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। ক্যালেন্ডার, ফেস্টুন ও পোস্টারের মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার চেয়ারম্যান পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীরাও বিভিন্নভাবে জানান দিচ্ছেন প্রার্থিতা। তাই নির্বাচনকে ঘিরে ভোটারদের মাঝেও কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলায় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে আলোচিত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী এইচ এম আল আমিন আহমেদ।

তরুণ এই ছাত্রনেতাকে নিয়ে ভোটারদের মধ্যে চলছে আলোচনা। জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন চান একাধিক প্রার্থী। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তরুণ এই ছাত্রনেতা। সে লক্ষ্যেই জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ইতোমধ্যে সামাজিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে ভোটারদের মাঝে শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন এই তরুণ ।

এদিকে ১/১১ এর পরীক্ষিত ছাত্রনেতা সাবেক বিরোধী দলীয় নেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মুক্তি আন্দোলন ও চারদলীয় বিএনপি জামাআত সরকারের ’আমলে বিভিন্ন হামলা-মামলার নির্যাতনের শিকার তৃণমূলে ব্যাপক জনপ্রিয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আল আমিন আহমেদকে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক রীতিমত প্রচার হচ্ছে। আসন্ন উপজেলা নির্বাচন নিয়ে দলের সর্বোচ্চ ফোরাম থেকে তিনটি ব্রিফিং আসছে তা আপনাদের সামনে তুলে ধরা হলো:- যারা আওয়ামীলীগে ১২ বছর বা তার উপরে আছে তাদের নমিনেশন দেওয়া হবে। আতকা আওয়ামীলীগ বা হাইব্রীডদের মনোনয়ন দেওয়া হবে না ৩।এমপি বা তার স্বজনদের নমিনেশন তো দূরের কথা, এমপি মহোদয়গণ এবার কারো জন্য সুপারিশ করতে পারবে না।

আমার মতে ১/১১ দলের দুর্দিনে যারা রাজপথে সংগ্রাম করেছে, যারা দলের জন্য নিজের ক্যারিয়ার বিসর্জন দিয়েছে তাদের নমিনেশন দেওয়া হোক। ১/১১ তে যারা দলের দুর্দিনে যেসব ছাত্রনেতারা রাজপথে ছিলো তাদের মধ্যে এইচ এম আল আমিন অন্যতম।দলের সুদিনে হাইব্রীডদের ভিড়ে তাকে পদে পদে বঞ্চিত হতে হয়েছে, তারপর তিনি সবকিছু মাথা পেতে সহ্য করেছে, যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও তাকে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা আল আমিন বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করেই ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করে আসছি। দলের সুখে-দুঃখে পাশে থেকেছি। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী আমি। দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় নৌকার জয় নিশ্চিত করতে সবাইকে সঙ্গে নিয়েই কাজ করব। সুযোগ পেলে এই উপজেলাকে একটি মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলব।