রাজনীতি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ জেলা কমিটি অনুমোদন- সভাপতি- শেখ রাসেল ও সাঃ সম্পাদক- রাব্বী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ জেলা কমিটি গঠন হয়েছে ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কমিটি অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। সাবেক ছাত্রলীগনেতা শেখ রাসেলকে সভাপতি ও ফিন্যান্স ও ছাত্রনেতা শেখ সাইফুল ইসলাম রাব্বীকে সাধারণ সম্পাদক করে আগামী এক বছরের জন্য এ কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুলের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে বলা হয়েছে, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সিন্ধান্ত মোতাবেক আগামী এক বছরের জন্য মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখা কমিটি অনুমোদন দেওয়া হলো  । 

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কমিটির নবনির্বাচির নেতৃবৃন্দকে আগামী এক মাসের মধ্যে কমিটি পূর্ণাঙ্গ করে কেন্দ্রীয় কমিটির সদর সেলে জমা দেওয়াদ জন্য বলা হয়েছে। একই সময়ের মধ্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার প্রতিটি ইউনিটে মুক্তযুদ্ধ মঞ্চের কমিটি গঠনের জন্যেও বলা হয়।  

কমিটির নবনির্বাচিত সভাপতি শেখ রাসেল বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের রুপকার, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে দেশকে স্বাধীন করেছেন আমাদের বীর মুক্তিযোদ্ধারা। আমি গর্বিত আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং মুক্তিযোদ্ধার রক্ত আমার শরীরে। সেই মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠনের একজন কর্মী হতে পেরে সৃষ্টিকর্তার শুকরিয়া আদায় করছি।

তিনি বলেন, দেশকে এবং দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের তাদের প্রাপ্ত সম্মান এবং সুযোগ পাইয়ে দিতে জীবন বাজি রেখে হলেও কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ। সেই সাথে ধন্যবাদ জানাচ্ছি কেন্দ্রীয় সকল নেতৃত্বকে যারা আমাদের উপর ভরসা করে এই মহান দায়িত্ব আমাদের উপর দিয়েছেন।

উল্লেখ্য কোটা সংস্কার আন্দোলনের ফলে সরকারী চাকুরীতে ২০১৮ সালে সব ধরণের কোটা প্রথা বাতিল ঘোষণা করেছে সরকার। পরবর্তীতে সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড গঠন করে ‘মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ’। ২০১৮ সালের ৪ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দীনকে আহ্বায়ক করে গড়ে উঠা ‘মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ’ সরকারী চাকরিতে ৩০% মুক্তিযোদ্ধা কোটা পূর্ণবহালের দাবীতে আন্দোলন করে আসছে।